মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৩:৪৩ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
সাংবাদিকরা জাতির জাগ্রত বিবেক: কংজরী চৌধুরী মাহিন্দ্র উল্টে প্রাণ গেল শ্রমিকের ৫২‘র ভাষা আন্দোলনের পথ ধরেই শুরু হয় বাঙ্গালীর স্বাধীকার আন্দোলন জাতীয় নাট্যোৎসবের উদ্বোধন খাগড়াছড়িতে মঞ্চায়িত হলো হত্যার শিল্পকলা ক্ষুদ্র নিগোষ্ঠিগুলোর বিপন্ন ভাষাগত অধিকার আদায়ে প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা মুজিববর্ষ উপলক্ষে গুইমারায় ৩ দিনব্যাপী অমর একুশে বইমেলা উদ্বোধন মাটিরাঙ্গায় ‘ভাষা-সংস্কৃতি ও বই মেলা’র উদ্বোধন গুইমারায় সনাতনী ছাত্র-যুব সমাজের উদ্যোগে গুনীজন সন্মাননা ও মাতৃ সম্মেলন অনুষ্ঠিত গুইমারা সরকারি কলেজে নবনির্মিত শহীদ মিনার উদ্বোধন খাগড়াছড়িতে সেনা বাহিনীর সহায়তায় অস্ত্র আটক করলো র‌্যাব
৯৯৯ এর ফোনে মানিকছড়িতে জায়গা দখলের চেষ্টা ব্যর্থ

৯৯৯ এর ফোনে মানিকছড়িতে জায়গা দখলের চেষ্টা ব্যর্থ

নিজস্ব প্রতিবেদক:: খাগড়াছড়ির মানিকছড়ি উপজেলার তিনট্যহরীতে স্থানীয় রাঙ্গামাটির ডিপির প্রজা মৃত ছিদ্দিক আহম্মদের ছেলেদের জায়গা দখলের চেষ্টা রোধে ফোন করা হয় ৯৯৯ নাম্বারে। ফলে তাৎক্ষণিক মানিকছড়ি থানার পুলিশ সদস্যদের নিয়ে ওসি মো: আমির হোসেন হাজির হন ঘটনাস্থলে।

বন্ধ করে দেওয়া হয় আবুল হোসেন শাহিন এর সন্ত্রাসী কায়গায় জায়গা দখলের চেষ্টা কার্যক্রম। তাৎক্ষনিক সিন্দুকছড়ি অধিনস্থ মানিকছড়ি সেনা বাহিনীর সাব জোন কমান্ডার হস্থক্ষেপে রক্ষা পায় সে জায়গা দখল। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বিরোধ মিমাংসা ছাড়া জায়গা দখলের বিরুদ্ধে কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়।

বুধবার মানিকছড়ি উপজেলা আইন শৃঙ্খলা বৈঠকেও বিষয়টি উত্থাপ্তিত হয়। ঐ দিনেই দুপুর সাড়ে ১২টায় মানিকছড়ি সহকারী পুলিশ সুপার মো: সাইফুল ইসলাম এর কার্যালয়ে জায়গা দখল প্রতিরোধে বৈঠকে কাগজপত্র যাচাই করে কঠোর নির্দেশনা দিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এডিল্যান্ডকে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নথি প্রেরণে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

এদিকে-মানিকছড়ি থানার এসআই কাজী মো: শাহ নেওয়াজকে ভূল বুজিয়ে জায়গা দখলের চেষ্টাকারী ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি জানার পর অভিযোগকারীর সাথে ভুল বুঝাবুঝির অবসান ঘটে। সে সাথে মিথ্যা তথ্যের ভিত্তিতে কেউ যেন হয়রানীর শিকার না হয় সেদিকে লক্ষ রেখে যেকোন অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত হয়ে পুলিশ প্রদক্ষেপ গ্রহণে কার্যকরী ভূমিকা রাখার আহবান জানান আবেদনকারী।

এর আগে খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার মোহা আহমার উজ্জামান এর নিকট লিখিত অভিযোগ করা হলে তিনি এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে মানিকছড়ি সহকারী পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দেয়। একই ভাবে লিখিত ভাবে জানানো হলে তাৎক্ষণিক প্রদক্ষেপ গ্রহণ করেন সিন্দুকছড়ি জোন কমান্ডার।

স্থানীয়দের দাবী যে কোন বিষয়ে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলে কমবে অনিয়ম-দূর্নীতি,ভূমি বিরোধ,দখল। পাশাপাশি পার্বত্যাঞ্চলে সেনাবাহিনীর শান্তি-সম্প্রীতির বজায় রাখার চেষ্টাসহ সরকারের ৯৯৯ এর সুফল পাবে স্থানীয় জনগণ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

Design & Developed BY CHT Technology
error: Content is protected !!