মানিকছড়িতে বিপুল গুলির খোসা উদ্ধার

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক,খাগড়াছড়ি:: মানকছড়ির তিনটহরীস্থ বড়ডলুর ভূতাইছড়ি মুসলিমপাড়া এলাকায় (বুধবার) গোলাগুলির স্থল থেকে আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে মানিকছড়ি থানার এ এস আই মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ ৩৮০ রাউন্ড ৬২ মি.মি গুলির খোসা ও ২ রাউন্ড তাঁজা গুলি উদ্ধার করেছে। পরে উদ্ধারকৃত গুলির খোসা ও ২টি তাজাগুলি জমা দেয় মানিকছড়ি থানা পুলিশ।

ঘটনার পর থেকে গুলির শব্দ আর ভয়-ভীতি এলাকাবাসীর মধ্যে আতঙ্কে রূপ নিয়েছে। এখন গ্রামবাসীর উপর হামলার আশঙ্কা নিয়ে আতঙ্কে কাটছে স্থানীয়দের। স্থানীয় সূত্রগুলো জানায় গোলাগুলির ঘটনায় স্থানীয় বাসিন্দা মো: ফয়েজ আহম্মদ এর একটি গরু গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে জানিয়ে স্থানীয়রা।

বুধবার বড়ডলুর ভূতাইছড়ি মুসলিমপাড়া এলাকায় অবস্থান করছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে লক্ষীছড়ি সেনা জোনের টহল দলের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌছলে সেনা টহলের উপর গুলি ছুড়ে সন্ত্রাসীরা। এ সময় পাল্টা গুলি চালায় সেনা সদস্যরা।

বিকেল ৫টা ১০ মিনিট থেকে প্রায় ১ ঘন্টা ব্যাপি গোলাগুলির পর সন্ত্রাসীরা পালিয়ে গেলে রাতেই সেনা সদস্যরা ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে একটি বিদেশী এসএমজি ২৬ রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিনসহ স্বশস্ত্র গুলিবিদ্ধ উপজাতীয় সন্ত্রাসীকে আটক করে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মানিকছড়ি থানার ওসি (তদন্ত) মো: মাসুদ করীম।

এ ঘটনায় লক্ষীছড়ি জোনের উপ-অধিনায়ক মেজর মো.আনিসুর রহমান পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে বর্তমানে সিএমএসে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে। এ হামলার জন্য পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপকে দায়ী করলেও তা অস্বীকার করেছে সংগঠনটির খাগড়াছড়ি জেলা সংগঠক অংগ্য মারমা বলেন, এ ধরনের কোন ঘটনার সাথে ইউপিডিএফের সম্পৃক্ততা নেই। সে সাথে যে এলাকায় গোলাগুলির হয়েছে সে এলাকায় ইউপিডিএফ প্রসীত গ্রুপের সাংগঠনিক কোন কার্যক্রম নেই বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Specify Facebook App ID and Secret in Super Socializer > Social Login section in admin panel for Facebook Login to work

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*