রেবেকা সুলতানা পলি স্মরণে শোক সভা ও দোয়া মাহফিল

Spread the love

মাইন উদ্দীন বাবলু, গুইমারা:: গুইমারা ইসলামীয়া দাখিল মাদরাসা হল রুমে মাদরাসার প্রাক্তন ছাত্র পরিষদের আয়োজনে রেবেকা সুলতানা পলি (১৩) হত্যার বিচার ও হত্যাকারী বাড়িওয়ালা এ.কে খানের ফাঁসির দাবিতে গুইমারাতে শোক সভাও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সহ-সভাপতি আব্দুল জলিলের সঞ্চালনায় ও সভাপতি নুরুননবী’র সভাপতিত্বে রেবেকা সুলতানা পলি হত্যার বিচার, হত্যাকারী বাড়িওয়ালা এ.কে খানের ফাঁসির দাবিতে শোক সভায় বক্তব্য রাখেন, সংগঠণের উপদেষ্টা মন্ডলির সভাপতি, জায়নুল আবদীন, উপদেষ্টা, ইউচুফ মাষ্টার, মাওলানা খোরশেদুল আলম, নিহত পলির মামা আব্দুল মুনাফ।

শোক সভায় বক্তারা রেবেকা সুলতানা পলি হত্যাকারি এ.কে খানের ফাঁসির দাবি করেনে।

শোক সভা ও দোয়া মাহফিলে অন্যান্নের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, গুইমারা ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সহ-কারী সুপার আ. ন. ম রফিকুল ইসলাম, মাওলানা শামসুল আলম, প্রাক্তন ছাত্র পরিষদের সি.সহ-সভাপতি  ইউছুফ জোশেফ, সাধারণ সম্পাদক আবু বকর ছিদ্দিক,যুব রেডক্রিসেন্ট গুইমারা উপজেলা ইউনিট যুব প্রধান, মাইন উদ্দিন বাবলু, প্রাক্তন ছাত্র পরিষদের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান, সাংগঠনিক ও দপ্তর সম্পাদক নুরুননবী, শিক্ষা সম্পাদক আমির হোসাইন, অর্থ সম্পাদক এনামুল হক আরিফ প্রমুখ।

উল্লেখ্য, নিহত স্কুল ছাত্রী রেবেকা সুলতানা পলি(১৩), গুইমারা উপজেলার ডাক্তার টিলার মালয়েশীয়া প্রবাসী ফিরোজ খান ও সকিনা খাতুন দম্পতির সন্তান। চট্টগ্রামের হালিশহর আহম্মদ মিয়া সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেনীর ছাত্রী। চট্টগ্রামের ইয়াংওয়ানে চাকুরীর সুবাদে নিহত পলির মা সকিনা খাতুন এক ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে ৩৮ নং ওয়ার্ডের কুড়ির পাড়ের একেখানের ৫তলা ভবনের নীচতলায় ভাড়া থাকতেন। চাকরীর কারণে মেয়েকে একায় থাকতে হতো বাড়িতে।এ সুযোগে লম্পট বাড়িওয়ালা একেখান(৪০) প্রায় পলিকে  কুপ্রস্তাব দিয়ে বিভিন্ন উছিলায় জালাতন করতো। বিষয়টি মেয়ে তাকে জানালেও তিনি ততটা গুরুত্ব দেননি। ২অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ভাড়া বাসা থেকে  রহস্যজনক ঝুলন্ত  পলির উদ্ধার করে বন্দর থানা পুলিশ।পলির মার দাবী পলিকে হত্যা করা হয়েছে।

Leave a Reply

Specify Facebook App ID and Secret in Super Socializer > Social Login section in admin panel for Facebook Login to work

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*