শুক্রবার, ১৮ Jun ২০২১, ০৩:৩১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মাথা গোঁজার ঠাঁই পাচ্ছে জমিলার পরিবার খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদে করোনা প্রতিরোধক বুথ উদ্বোধন পার্বত্য চট্টগ্রামে উপজাতিদের সরকারি খাস ভূমি দখল ও ঘর বাণিজ্যের হিড়িক পার্বত্যাঞ্চলে বাঙালি শরনার্থীদের মানবেতর জীবন যাপন খাগড়াছড়িতে উন্নয়ন কাজের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র খাগড়াছড়িতে ২৪ ঘন্টায় ১৩ জন করোনায় আক্রান্ত সিন্দুকছড়িতে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর বুঝে পাচ্ছেন গৃহহীন পরিবার পাহাড়ে চলমান উন্নয়ন কাজের অগ্রগতি নিয়ে চলতি অর্থবছরে উন্নয়ন বোর্ডের ৪র্থ সভা খাগড়াছড়িতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ শ্রমিকলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন হতদরিদ্রদের “ঘরের” স্বপ্ন পূরণ করছেন প্রধানমন্ত্রী
মহালছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নানা অব্যবস্থাপনা বিরাজ করছে – প্রতিবেদন ২

মহালছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নানা অব্যবস্থাপনা বিরাজ করছে – প্রতিবেদন ২

নিজস্ব প্রতিবেদক :: খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নানা অব্যবস্থাপনা বিরাজ করছে । এই মহালছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন অনিয়মের মাধ্যমে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অবৈধভাবে বাসা-বাড়ি নির্মাণ করে ভাড়া দেওয়া, বদলী হলে অন্যের কাছে নির্মিত বাসা মোটা অংকের টাকা নিয়ে বিক্রি করা, কর্মস্থলে হাজিরা দিয়ে উপস্থিত না থেকে নিজেদের কাজকর্মে ব্যস্ত থাকে বলে স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে।

এ ধরনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরেজমিন তথ্যানুসন্ধানে গেলে সত্যতার প্রমান পাওয়া গেছে। তিনটি সরকারি স্টাফ কোয়ার্টার থাকলেও, সেখানে অন্যরা খেয়াল-খুশি মত ব্যবহার করে। বিভিন্ন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য নির্মিত বিল্ডিংগুলো সংস্কার না করায়, ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। বিল্ডিংয়ের বিভিন্ন স্থানে ফাটল, নোংরা আবর্জনা অবস্থায় থাকলেও দেখার কেউ নেই। এমন পরিবেশে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভবনগুলো সংস্কার না করলে, যে কোন মূহুর্তে দূর্ঘটনা ঘটতে পারে।

জরাজীর্ণ অবস্থায় থাকা মহালছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সরকারি কোয়ার্টার

চাকরীরত কিছু কর্মচারী এলপিআর-এ গেলেও বাসা-বাড়ি ছেড়ে না দিয়ে, অবৈধভাবে বসবাস করে যাচ্ছে, সরকার কর্তৃক সরবরাহকৃত ঔষধ-পত্র এলোমেলো অবস্থায় স্টোর রুমের বাইরে বারান্দায় রেখে সরকারের নিয়ম-নীতি ভঙ্গ করে সাধারণ জনগণকে না দিয়ে বাহিরে বিক্রি করা হচ্ছে বলে হাসপাতালে আসা রোগীরা অভিযোগ করছে। মহালছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের রোগীরা ডাক্তার দেখিয়ে ঔষধের স্লিপ নিয়ে হাসপাতালের ফার্মেসী’তে ঔষধ নিতে গেলে ঔষধ থাকা সত্বেও রোগীদেরকে ঔষধ নেই বলে রোগীদেরকে বাইরে থেকে ঔষধ ক্রয় করতে বলে। কিন্তু গত ০৭ অক্টোবর’২০২০ জেলা থেকে যাওয়া বিভিন্ন সাংবাদিকদের হস্তক্ষেপে ঔষধ দিতে বাধ্য হয়।

এছাড়াও ডাক্তারদের দেওয়া বিভিন্ন পরীক্ষা হাসপাতালে করার কথা থাকলেও, তা না করে বাইরে থেকে তাদের নির্দিষ্ট কোন ডায়াগনোস্টিক সেন্টারে করানোর পরামর্শ দেন। এতে করে ঐ ডায়াগনোস্টিক সেন্টার থেকে তারা মোটা অংকের একটি মুনাফা অর্জন করেন।

সরেজমিনে তথ্যানুসন্ধানে আরো জানা যায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা রীতিমতো কর্মস্থলে আসেন না, মাঝেমধ্যে আসলেও বেলা ১১ টায় এসে ১২ ঘটিকায় প্রস্থান করেন। স্থানীয় এবং জেলার সাংবাদিকগণ একাধিকবার বিভিন্ন তথ্যের জন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলেও, উনাকে না পেয়ে ফেরত আসেন। উল্লেখিত কর্মকর্তা নিজে টেলিফোনে সাংবাদিকদের সাথে যোগাযোগ করার কথা বলে গত ০৭ অক্টোবর সাংবাদিকদেরকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গিয়ে তিনি নিজেই উপস্থিত ছিলেন না। এতে সাংবাদিকরা হয়রানীর স্বীকার হয়েছে।

স্থানীয় উপজেলা পরিষদের মিটিং ও সভায় উপস্থিত থাকাটা যে উনার দায়িত্ব ও কর্তব্যের মধ্যে পড়ে, এটারও তোয়াক্কা করেন না উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এই কর্মকর্তা। এছাড়াও সরকার এলাকায় জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে কি কি পদক্ষেপ গ্রহণ করছেন তা এলাকাবাসীর যে জানার অধিকার রয়েছে সে বিষয়টারও তোয়াক্কা করেন না।

তথ্যানুসন্ধানে আরো জানা যায়, বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ চিকিৎসা সেবা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারী মাসে কয়েকদিন কর্মস্থলে এসে মাসের পর মাস বাড়িতে বসে বেতন ও টিএডিএ ভোগ করছেন। করোনাকালীন ও বর্তমান সময়ে বিপুল অর্থ ব্যয়ে ফ্লু কর্ণার করা হলেও, তা অব্যবহৃত ও অরক্ষিত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। এছাড়াও আরো বহু অনিয়মের কথা শোনা যায় যার রহস্য বেরিয়ে আসবে গোপন তদন্তের মাধ্যমে।

এই বিষয়ে মহালছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার ও কর্মচারীদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা বলেন, হসপিটালে স্টোর রুম না থাকায় ঔষধ পত্র আপাতত বারান্দায় রাখা হয়েছে।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা আইনত দন্ডণীয় অপরাধ।

Design & Developed BY Muktodhara Technology Ltd