শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০২:১৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
রাঙ্গামাটি জেলায় আ’লীগের সম্মেলন রাজনৈতিক অঙ্গনে উত্তাপ্ত পার্বত্য চট্টগ্রামের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির প্রথম নারী জেলা প্রশাসক শ্রাবস্তী রায় “পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়ন ও জুম্ম জাতির অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবী” কর্ণফুলী নদীতে এখনও ফেরি, সেতু না হওয়ায় যাত্রীদুর্ভোগ চরমে বীর মুক্তিযোদ্ধা রেফায়েত উল্লাহকে গার্ড অব অনার প্রদান রামগড় উপজেলা বিএনপি ও পৌর বিএনপির কাউন্সিল সম্পন্ন গুইমারা উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থীতা বাছাই সম্পন্ন- বাতিল ২ মহালছড়িতে সরকারি টাকা নিয়ে উধাও নিরাপত্তা প্রহরীর কাপ্তাই পিডিবি এলাকায় যাত্রী ছাউনী ও নবনির্মিত রাস্তার উদ্বোধন নানিয়ারচরে বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল ও পুরষ্কার বিতরণ
বার বার জরিমানা করার পরও থামছে না অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ও মাটিকাটা

বার বার জরিমানা করার পরও থামছে না অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ও মাটিকাটা

নিজস্ব প্রতিবেদক:: খাগড়াছড়ি জেলার বিভিন্ন উপজেলায় ফসলী জমি থেকে মাটি কাটার মহাৎসব চলছে। স্থানীয় প্রশাসন জেল-জরিমানা করেও থামানো যাচ্ছে না এই অবৈধ মাটি কাটা ও বালু উত্তোলনের কাজ। গুইমারা, রামগড়, মানিকছড়ি, পানছড়ি সহ বিভিন্ন স্থানে গত ১সপ্তহে প্রায় ৩ থেকে ৪ লক্ষ টাকা জরিমানা করেছে স্থানীয় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

মাটিরাঙ্গায় ওয়াছু এলাকায় অবৈধভাবে মাটি কেটে অন্যত্র বিক্রি করার দায়ে নেপাল ত্রিপুরা নামে এক ব্যক্তিকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় মাটি পরিবহনের কাজে নিয়োজিত ৪টি ট্রাক্টর জব্দ করা হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওয়াছু এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিজ তৃলা দেব।

গুইমারায় ফসলী জমি থেকে ভোল্ডেজার দিয়ে মাটি কাটার অপরাধে প্রথম ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করার পর আবারো একই স্থানে মাটি কাটার অপরাধে নিরাপত্তা বাহিনী ৩টি গাড়ি আটক করে থানায় হস্তান্তর করে।

অভিযানকালে মাটি কাটার অপরাধে বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থপনা আইন ২০১০ এর ৪(গ) এর বিধান লঙ্ঘন করেছে এবং একই আইনের ১৫ (১) দারায় বিধানে কৃষি জমির টপসয়েল কাটার অভিযোগে এই জরিমানা করা হয়।

অন্যদিকে, মানিকছড়িতে কৃষি জমি থেকে সাদা বালু উত্তোলনের দায়ে মো: ইউনুছ মিয়া, পিতা-আব্দুর রহিম, সাং ডেপুয়াপাড়াকে অবৈধভাবে কৃষি জমি থেকে সাদা বালু তোলার অপরাধে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে সাবেক উপজেলা নির্বাহী অফিসার তামান্না মাহমুদ।

বিষয়ের সত্যতা নিশ্চিত করে গুইমারা ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, অবৈধভাবে মাটিকাটাসহ এমন অপরাধের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা আইনত দন্ডণীয় অপরাধ।

Design & Developed BY Muktodhara Technology Ltd