শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৫১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
নিজগুণে “পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আব্দুল আজিজ” থাকবেন খাগড়াছড়িবাসীর হৃদয়ে আবারো গুইমারায় শান্তিপরিবহন ও কাভার্ডভ্যান মুখোমুখি সংঘর্ষে- নিহত ১ খাগড়াছড়িতে বিদ্যালয়ের গেট চাপায় শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন পাহাড়ে সুবিধা বঞ্চিত গরীব-মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবৃত্তি ও সার্টিফিকেট বিতরণ খাগড়াছড়িতে বিদ্যালয়ের গেইট ভেঙ্গে শিশু শিক্ষার্থীর মৃত্যু মাটিরাঙ্গায় অর্থ লেনদেনকে কেন্দ্র করে হাতা-হাতিতে “হাসান আল মামুন” আহত খাগড়াছড়িতে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস নিয়ে পাল্টা-পাল্টি কর্মসূচি খাগড়াছড়িতে জ্বালানী তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ ‘পাহাড়ের উন্নয়নে সকল সম্প্রদায়ের সম-অংশীদারিত্ব প্রয়োজন’- সাবেক রাষ্ট্রদূত রাঙামাটিতে বঙ্গমাতার ৯২তম জন্মবার্ষিকী পালিত
রামগড়ে স্ত্রী ও শিশুকে গলাকেটে হত্যার পর স্বামী লাপাত্তা

রামগড়ে স্ত্রী ও শিশুকে গলাকেটে হত্যার পর স্বামী লাপাত্তা

নুরুল আলম:: খাগড়াছড়ির রামগড়ের প্রত্যন্ত মধুপর এলাকায় তালাবদ্ধ ঘর থেকে মা ও শিশুর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্ত্রী ও শিশু হত্যাকান্ডের দায়ে আসামী সোলেমান এর বিরুদ্ধে হত্যা মামল হওয়ার পরও এখনো গ্রেফতার হয়নি। পুলিশ গ্রেফতার অভিযান রেখেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়, রামগড়ের পাতাছড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের দূর্গম মধুপুর গ্রামে পাহাড়ের ঢালুতে অবস্থিত সোলেমান টিন সেডের তালাবদ্ধ ঘর থেে দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় ঘটনাস্থলে গিয়ে তালা ভেঙ্গে ঘরের ভিতরে খাটের উপর লেপ ও তোষকে মোড়ানো অবস্থায় মা খালেদা আক্তার পিংকী (২৪) ও ৪মাস বয়সী শিশু কণ্যা সালমা আক্তারের গলাকাটা লাশ উদ্ধা করে। পুলিশ ঐ ঘর থেকে হত্যায় ব্যবহৃত একটি দা জন্দ করেছে।

গতকাল সোমবার (৩ জানুয়ারী) সন্ধ্যায় ঘরের তালা ভেঙ্গে খাটের উপর লেপ-তোষকে মোড়ানো অবস্থায় মা খালেদা আক্তার পিংকি (২৪) ও ৪ মাস বয়সী শিশু কন্যা সালমা আক্তারের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত খালেদা আক্তার পিংকীর স্বামী মো: সোলেমান তিনদিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রী ও শিশুটিকে হত্যা করে সোলেমান গাঁ ঢাকা দিয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, গত বৃহস্পতিবার (৩০) ডিসেম্বর) সন্ধার পর থেকে খালেদার স্বামীর মো: সোলেমান নিখোঁজ রয়েছে। সোলেমান পেশায় একজন রাজমিস্ত্রি। প্রায় ৮ বছর আগে মধুপুরের জাহেদ আলীর ছেলে সোলেমানের বিয়ে হয় একই এলাকার আব্দুল খালেক দুলালের মেয়ে খালেদা আক্তারের সাথে। বিয়ের পর থেকে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বনিবনা ছিল না। এক মামাত বোনের সাথে পরকীয়া সম্পর্কের জের ধরে পারিবারিক কলহ ছিল নিত্যদিন। তাদের সংসারে দুটি কন্যা সন্তান ছিল। ৬ বছরের কণ্যাটি থাকে নোয়াখালীতে দাদারবাড়িতে কয়েকদিন আগেও পারিবারিক কলহের কারণে সালিশ হয়।

সর্বশেষ সালিশের পর গত বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) রাতে খালেক মেয়ের বাড়িতে দাওয়াত খান। পরদিন বৃহস্পতিবার রাতে মেয়ে ও মেয়ের জামাইয়ের মোবাইল নম্বরে কল দিয়ে ফোন বন্ধ পেয়ে বেয়াইনকে সোলেমানের মা) ফোন করে খোঁজ নিতে বলেন। ঘর তালাবদ্ধ দেখে আত্মীয়-স্বজনরা সম্ভাব্য বিভিন্ন জায়গা তাদের খোঁজ নেয়ার চেষ্ঠা করে। এদিকে গতকাল সোমবার (৩ডিসেম্বর) বেলা ৪ টার দিকে এলাকার লোকজন তালাবদ্ধ ঘর থেকে দুর্গন্ধ পেয়ে স্থানীয় নাকাপা ফাঁড়ির পুলিশকে খবর দেয়। পরে রামগড় থানায় খবর দেয়া হলে রামগড় সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হোসাইন মোহাম্মদ রায়হান কাজেমী ও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সামছুজ্জামানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশ দরজার তলা ভেঙ্গে ঘরের ভিতরে খাটের উপর থেে লাশ দুটি উদ্ধার করে।

রামগড় থানার ওসি মোহাম্মদ সামছুজ্জামান জানান, স্বামীর পরকীয়ার কারণে পারিবারিক কলহের জের ধরে এ জোরা খুনের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিক তদন্তে মনে হচ্ছে। তিনি বলেন, ধারণা করা হচ্ছে সোলেমান প্রথমে স্ত্রী খালেদা আক্তারকে ধাড়ালো দা দিয়ে কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যার পর ৪ মাসের কন্যা শিশুকে জবাই করে হত্যার লেপ তোষক দিয়ে লাশ দুটি মড়িয়ে রেখে ঘরে তালা দিয়ে পালিয়ে যায়। গত বৃহস্পতিবার রাতেই এ হত্যাকান্ড হয়। তিনি বলেন, শুক্রবার সকালে নাকাপা বাজারে রাস্তার পাশে বাসের জন্য তাকে অপেক্ষা করতে দেখা গেছে। সোমবার রাত ১০টায় ওসি আরোও জানান, নিহত খালেদা আক্তারের বাবা আব্দুল খালেক দুলাল মেয়ে ও নাতনীর হত্যার ঘটনায় সোলেমানকে আসামী করে হত্যা মামলা করেন।

 

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা আইনত দন্ডণীয় অপরাধ।

Design & Developed BY Muktodhara Technology Ltd