বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:০০ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
রাঙ্গামাটির কাপ্তাই হ্রদে স্থাপনা নির্মাণ নিষিদ্ধ রাঙ্গামাটিতে ‘বনভান্তের’ ১১তম পরিনির্বাণবার্ষিকী উদযাপিত খাগড়াছড়িতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের ৫ম বার্ষিকী সম্মেলন পাহাড়ে হতদরিদ্রদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ নানিয়ারচরে অতিরিক্ত দায়িত্বে ইউএনও সৈয়দা সাদিয়া মানিকছড়িতে অ্যাম্বুলেন্স চাপায় স্কুল ছাত্রের মৃত্যু পানছড়িতে ক্ষুদে বালক-বালিকাদের দৃষ্টিনন্দন ফুটবল অনুষ্ঠিত গুইমারাতে শীতবস্ত্র বিতরন করেছে গনতান্ত্রিক ইউপিডিএফ হাজারো শীতার্ত পেলেন ভালোবাসার উষ্ণতার উপহার গুইমারায় পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উদযাপন উপলক্ষ্যে ওয়াজ মাহফিল
অনিয়মের ভিডিও ধারন করায় সাংবাদিকের মোবাইল কেড়ে নেয়ায় তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়

অনিয়মের ভিডিও ধারন করায় সাংবাদিকের মোবাইল কেড়ে নেয়ায় তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়

নিজস্ব প্রতিবেদক:: অনিয়মের অভিযোগে ভিডিও ধারণ করার সময় সাংবাদিকের মোবাইল কেড়ে নেয়ার তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায় গুইমারা প্রেসক্লাবের সভাপতি নুরুল আলম । ফোন আনলক করে সেখান থেকে গুরুত্বপূর্ণ ভিডিও ও ছবি ডিলেট করে দেন তিনি।
মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়া সাংবাদিকের নাম নয়ন চক্রবর্তী। সে জাগো নিউজ বান্দরবান জেলা প্রতিনিধি। বুধবার (১৮ মে) সকাল সাড়ে ১১টার সময় বিআরটিএ বান্দরবান সার্কেল অফিসে এঘটনা ঘটে।

সাংবাদিক নয়ন চক্রবর্তী জানায়, একটি ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য একজন ভুক্তভোগীকে ২ বছর ধরে হয়রানি করছে। ইতোমধ্যে তার কাছ থেকে বাড়তি ৩ হাজার টাকাও নেয়া হয়েছে, তারপরও লাইসেন্স দেয়া হচ্ছেনা। এমন অভিযোগ পেয়ে বিআরটিএ এর অফিসে যাই। এসময় আমার মোবাইলটি হাতে নিলে বিআরটিএ এর কর্মকর্তা আমার মোবাইলটি কেড়ে নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভিডিও ডিলেট করে দেয়। সে আরো জানায়, আমার এ ভিডিওগুলো বিভিন্ন উপজেলা থেকে সংগ্রহ করতে প্রায় লক্ষাধিক টাকা ব্যয় হয়েছে। সে জানায় কর্মকর্তা নিজেকে বাঁচাতে পরে পুলিশকেও খবর দেয়।

বিআরটিএ বান্দরবান সার্কেলের মোটরযান পরিদর্শক মোহাম্মদ মামুনুর রশিদ বলেন, অফিসে এসে পরিচয় না দিয়ে কারোর অনুমতি না নিয়েই ভিডিও ধারন করার সময় তার মোবাইল কেড়ে নেয়া হয়। পরে উর্ধ্বতন কর্মকর্তার নির্দেশে তাকে থানায় আনা হয়।

এ বিষয়ে বান্দরবান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অশোক কুমার পাল বলেন, বিআরটিএ এর কর্মকর্তা পুলিশকে খবর দিলে নয়ন চক্রবর্তী নামের একজনকে ধরে আনা হয়। কিন্তু তার মোবাইলে গুরুত্বপূর্ণ কোন ভিডিও না পাওয়ায় তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা আইনত দন্ডণীয় অপরাধ।

Design & Developed BY Muktodhara Technology Ltd