মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৩৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মানিকছড়িতে প্রয়াত শিক্ষক ও মারমা নেতা চিংসামং চৌধুরী স্মরণে প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্যঅর্পন নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে রামগড় পৌর মেয়রের চেয়ারে রফিকুল আলম কামাল মাটিরাঙ্গায় সড়ক পরিবহন আইনে ১৫ জনকে জরিমানা “আওয়ামীলীগ সরকার আজীবন দুস্থ অসহায় মানুষের পাশে থাকবে” পার্বত্য চুক্তির ২৪তম বৎসর পূর্তিতে গুইমারা বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা খাগড়াছড়িতে দরিদ্র জনগোষ্ঠির চিকিৎসা সেবায় সেনাবাহিনী খাগড়াছড়ি ও গুইমারায় নানা আয়োজনে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির দুই যুগ পূর্তি পালিত হচ্ছে সবুজদের এমন সবুজায়ন পাহাড়ে শিক্ষনীয়-ডিসি প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস গুইমারা সরকারি কলেজের এইচ এস সি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্টান অনুষ্ঠিত হয়েছে গুইমারা উপজেলার ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকি পালিত
করোনা সংক্রমণ রোধে খাগড়াছড়ির ১১টি হাসপাতালে রেড ক্রিসেন্ট

করোনা সংক্রমণ রোধে খাগড়াছড়ির ১১টি হাসপাতালে রেড ক্রিসেন্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক:: খাগড়াছড়ি জেলার ১১টি সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধে আন্তর্জাতিক রেড ক্রসের সহায়তায় দ্বিতীয় পর্যায়ে সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ (আইপিসি) কার্যক্রম শুরু করছে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি। বুধবার (২৩ জুন) সকালে খাগড়াছড়ি রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের হলরুমে এর উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়।

এতে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের সেক্রেটারি মো. শানে আলম, সিএইচটি ওয়াশ প্রকল্পের সমন্বয়ক মোহাম্মদ আরিফ রব্বানি, খাগড়াছড়ি রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের কার্যনির্বাহী সদস্য জীতেন বড়ুয়া ও মো. শহীদুল ইসলাম, আইসিআরসির ওয়াটার হ্যাবিটেট ইঞ্জিনিয়ার জয়েস খীসা, আইসিআরসির নেটওয়ার্কিং এডভাইসার শিরিন সুলতানা, খাগড়াছড়ি রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট কর্মকর্তা আব্দুল গনি মজুমদার, ওয়াশ প্রকল্প কর্মকর্তা হিমাংকর চাকমা প্রমূখ।

এদিকে-সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম বিষয়ে বুধবার দুপুরে জেলা সিভিল সার্জন ডা. নুপুর কান্তি দাশের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি ও আন্তর্জাতিক রেড ক্রস কমিটির প্রতিনিধিরা।

খাগড়াছড়ি রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের পক্ষ থেকে জানান, সংক্রমণ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের আওতায় জেলার ১১টি সরকারি হাসপাতাল এবং স্বাস্থ্য কেন্দ্রে সুরক্ষা সরঞ্জাম বিতরণ করা হবে। এর মধ্যে রয়েছে ক্লোরিন, হ্যান্ড গ্লাভস, সার্জিক্যাল মাস্ক, ফেইস স্লাইড, পিপিই, বালতি, ডাস্টার ক্লথ, ফ্লোর ক্লিনার সহ অন্যান্য সুরক্ষা সরঞ্জাম। পাশাপাশি প্রতিটি হাসপাতালে পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের প্রশিক্ষণ ও প্রয়োজনীয় সুরক্ষা সরঞ্জাম প্রদান করা হবে বলেও এতে জানানো হয়।

উল্লখ্যে, গতবছরও করোনাভাইরাস প্রতিরোধে খাগড়াছড়ি জেলার হাসপাতালগুলোতে সংক্রমন প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা আইনত দন্ডণীয় অপরাধ।

Design & Developed BY Muktodhara Technology Ltd