মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:২২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মানিকছড়িতে প্রয়াত শিক্ষক ও মারমা নেতা চিংসামং চৌধুরী স্মরণে প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্যঅর্পন নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে রামগড় পৌর মেয়রের চেয়ারে রফিকুল আলম কামাল মাটিরাঙ্গায় সড়ক পরিবহন আইনে ১৫ জনকে জরিমানা “আওয়ামীলীগ সরকার আজীবন দুস্থ অসহায় মানুষের পাশে থাকবে” পার্বত্য চুক্তির ২৪তম বৎসর পূর্তিতে গুইমারা বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা খাগড়াছড়িতে দরিদ্র জনগোষ্ঠির চিকিৎসা সেবায় সেনাবাহিনী খাগড়াছড়ি ও গুইমারায় নানা আয়োজনে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির দুই যুগ পূর্তি পালিত হচ্ছে সবুজদের এমন সবুজায়ন পাহাড়ে শিক্ষনীয়-ডিসি প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস গুইমারা সরকারি কলেজের এইচ এস সি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্টান অনুষ্ঠিত হয়েছে গুইমারা উপজেলার ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকি পালিত
খাগড়াছড়িতে অতিরিক্ত টোল আদায় বন্ধে মানববন্ধন

খাগড়াছড়িতে অতিরিক্ত টোল আদায় বন্ধে মানববন্ধন

ফলদ বাগান মালিকদের কঠোর দেওয়ার কর্মসূচীর হুশিয়ারী

আল-মামুন,খাগড়াছড়ি:: ফুষে উঠছে স্থানীয় ফলদ বাগান,মালিকসহ ব্যবসায়ী সংগঠনগুলো। কৃষি পণ্যে বছরের পর বছর মাত্রা অতিরিক্ত টোল আদায়ের অভিযোগে এবার মাঠে নেমেছে তারা।

বৃহস্পতিবার সকালে খাগড়াছড়ি জেলা শহরের শাপলা চত্বরে খাগড়াছড়ি ফলদ বাগান মালিক সমবায় সমিতি,মারমা ফলদ বাগান মালিক সমিতিসহ বেশ কয়েকটি সংগঠন অতিরিক্ত টোল আদায়ের প্রতিবাদে মানববন্ধন করে টোল আদায় বন্ধে প্রশাসনের হস্থক্ষেপ কামনা করেন। সে সাথে খাগড়াছড়ি জেলায় আমসহ কৃষি পণ্যের উপর পৌরসভা,জেলা পরিষদ,বাজার ফান্ড ৩ বার কর আদায় করছে বলে মন্তব্য করে মানববন্ধন থেকে এটি স্থানীয় সরকার পরিষদ আইন লঙ্গন জানিয়ে অতিরিক্ত টোল আদায় বন্ধ না হলে কঠোর কর্মসূচী দেওয়ার হুশিয়ারী জানান তারা।

মারমা ফলদ বাগান মালিক সমিতির সভাপতি সাবেক কমিশনার আবুশি মারমার সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন, খাগড়াছড়ি ফলদ বাগান মালিক সমবায় সমিতির প্রধান উপদেষ্টা অনিমেষ চাকমা রিঙ্কু,উপদেষ্টা এড. সুপাল চাকমা,সাধারণ সম্পাদক দিবাকর চাকমা,মারমা ফলদ বাগান বাগান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বাবুশি চৌধুরী, খাগড়াছড়ি ফল ব্যবসায়ী সমিতির সদস্য এরশাদ প্রমূখ।

মানববন্ধনের বক্তারা বলেন, খাগড়াছড়িতে কোন শিল্প কারখানা নেই। ব্যবসা-বাণ্যিজ্যেও পিছিয়ে পড়া এ জেলায় বেকারত্বের হারও বেশি। পাহাড়ের পতিত টিলা ভূমিতে আমসহ বিভিন্ন চাষাবাদ করে নিজের বেকারত্ব দুর ও সাবলম্বী হয়ে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে আসছে স্থানীয়রা। পার্বত্য এই জেলায় কাঁচা মাল সংরক্ষণের জন্য নেই কোন হিমাগার। ফলে বেশি দিন রাখলেই এই সব কৃষি পণ্য নষ্ট হয়ে ক্ষতির সম্মূখিত হতে হচ্ছে মালিক ও ব্যবসায়ীদের।

এই জেলার কৃষি পণ্যে অন্য জেলার তুলনায় মাত্রাতিরিক্ত টোল আদায়ের ফলে এক মুরগীকে তিন বাজার জবাই করা হচ্ছে মন্তব্য করে এসএ পরিবহণ ও সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিসের অতিরিক্ত সার্ভিস চার্জ নেওয়ার অভিযোগ করেন সংগঠনগুলো। এতে করে বিপনন খরচ বৃদ্ধি পাওয়ায় কৃষকরা বঞ্চিত হচ্ছে ন্যায্য মূল্য পাওয়া থেকে অন্যদিকে ভোক্তারাও বেশি দামে আমসহ অন্যান্য কৃষি পণ্য ক্রয় করতে বাধ্য হচ্ছে বলে জানান বক্তারা।

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা আইনত দন্ডণীয় অপরাধ।

Design & Developed BY Muktodhara Technology Ltd