মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০২:১০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মানিকছড়িতে প্রয়াত শিক্ষক ও মারমা নেতা চিংসামং চৌধুরী স্মরণে প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্যঅর্পন নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে রামগড় পৌর মেয়রের চেয়ারে রফিকুল আলম কামাল মাটিরাঙ্গায় সড়ক পরিবহন আইনে ১৫ জনকে জরিমানা “আওয়ামীলীগ সরকার আজীবন দুস্থ অসহায় মানুষের পাশে থাকবে” পার্বত্য চুক্তির ২৪তম বৎসর পূর্তিতে গুইমারা বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা খাগড়াছড়িতে দরিদ্র জনগোষ্ঠির চিকিৎসা সেবায় সেনাবাহিনী খাগড়াছড়ি ও গুইমারায় নানা আয়োজনে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির দুই যুগ পূর্তি পালিত হচ্ছে সবুজদের এমন সবুজায়ন পাহাড়ে শিক্ষনীয়-ডিসি প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস গুইমারা সরকারি কলেজের এইচ এস সি পরিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্টান অনুষ্ঠিত হয়েছে গুইমারা উপজেলার ৭ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকি পালিত
জালিয়াপাড়ায় নীরহ পরিবারদের বাড়ি দখল ও উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র

জালিয়াপাড়ায় নীরহ পরিবারদের বাড়ি দখল ও উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র

নিজস্ব প্রতিবেদক

খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা উপজেলার জালিয়াপাড়ায় বসবাসরতদের জমি অবৈধ দখলের ষড়যন্ত্র। একই জমির ক্রেতা তিন জন। নূরুল ইসলামের ওয়ারিশ প্রায় ১০ জন হলেও বাকিদের না জানিয়ে সুবেদার নূরুল ইসলামের ছেলে, আবুল হোসেন একাই ৪ একর টিলা ভুমির নামজারী মামলা দায়ের করেছে। ক্রেতা দেখানো হয়েছে সলেহ উদ্দিন কে। অপর দুই ব্যাক্তি রফিকুল আলম ও তাজুল ইসলামের নিকট কোর্ট এফিডেবিট করে ২০১০ সনে নিজ অংশের ৪০ শতক জায়গা বিক্রি করেছেন  নূরূল ইসলামের ছেলে মোঃ আলী হোসেন।

সুবেদার নুরূল ইসলামের ছেলে মোঃ আলী হোসেন (৪৩) থানাঃ আখাউড়া, জেলা বিবাড়িয়া,  ওয়ারিশ সূত্রে ২২৭ নং হাফছড়ি মৌজা  গুইমারা খাগড়াছড়ির ১৪ নং হোল্ডিয়ের ৪ একর ৩য় শ্রেনীর টিলা ভুমি হইতে তার অংশের ৪০ শতক জমি কোর্ট এফিডেবিটের মাধম্যে ২৬ জুলাই ২০১০ সনে সাক্ষীগণ আবু মুছা মানিক, আবুল হাসেম ও মোঃ সুলতান মিয়া এর উপস্থিতিতে  মোঃ রফিকুল আলম, পিতা- মৃত, হাজি ওবাইদুল হক, পানখাইয়া পাড়া সড়ক, খাগড়াছড়ি ও মোঃ তাজুল ইসলাম, পিতা- সামসুল হক,  পুরাতন জীপ স্টেশন, খাগড়াছড়ি সড়ক এর  নিকট বিক্রি করে।

তাছাড়াও সালেহ উদ্দিন উক্ত জমির ক্রয় সুত্রে  মালিকানা দবী করেন। তবে দেখা যায় মংসাই মগ, পিতা- মৃত, লাব্রে মগের নিকট থেকে ১৪ নং হোল্ডিং এর ৪ একর জায়গা সুবেদার নুরূল ইসলাম, পিতা- সুন্দর আলী খান ক্রয় করেন। যার ওয়ারিশ গনের মধ্যে তার ২ স্ত্রী ও তাদের ছেলে মেয়ে রয়েছে।

গুইমারা উপজেলা বিএনপির সভাপতি মোঃ ইউচুপ-এর উপস্থিতিতে সালেহ উদ্দিন নূরুল ইসলামের ওয়ারিশ যার থেকে তিনি জমি ক্রয় করেছেন তাকে এনে জমি ক্রয়ের সত্যতা প্রমান করতে চাইলেও কোনো এক রহস্যজনক কারনে এখন সে অপারগতা জানাচ্ছে।

জালিয়াপাড়া গুচ্ছগ্রামে বসবাসরত নীরহ ফাতেমা বেগম কে এলাকা থেকে উচ্ছেদ করার জন্য সালেহ উদ্দিনের মদদে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র মুলক হামলা, শাররীক নির্যাতন সহ নানা ভাবে হয়রানি করে আসছে মোঃ ফরিদ মিয়া। তাকে কয়েক দফা মারধরের ঘটনা ঘটলেও নিরব জেলা ও উপজেলার মানবাধিকার কর্মী। পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পরেও  নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির কেউ কোনো খোজ খবর নেয়নি। এছারাও আশেপাশে বসবাসরত প্রতিবেশিদের বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করে আসছে সালেহ উদ্দিন।

 

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা আইনত দন্ডণীয় অপরাধ।

Design & Developed BY Muktodhara Technology Ltd