বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০৮:২৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
খাগড়াছড়িতে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস নিয়ে পাল্টা-পাল্টি কর্মসূচি খাগড়াছড়িতে জ্বালানী তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ ‘পাহাড়ের উন্নয়নে সকল সম্প্রদায়ের সম-অংশীদারিত্ব প্রয়োজন’- সাবেক রাষ্ট্রদূত রাঙামাটিতে বঙ্গমাতার ৯২তম জন্মবার্ষিকী পালিত শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে অসহায়দের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন গুইমারায় শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী পালিত মাটিরাঙ্গায় শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯২তম জন্মবার্ষিকী পালিত খাগড়াছড়িতে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের ৯২তম জন্মবাষির্কী পালিত গুইমারায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছার ৯২ তম জন্মদিন পালিত হাজী মোহাম্মদ জসিম সভাপতি,মো: আকতার হোসেন সম্পাদক
সন্ত্রাসী হামলার আতঙ্কে রোয়াংছড়ি ও রাজস্থলিতে আশ্রয় নিয়েছে ২৩টিরো বেশি পরিবার

সন্ত্রাসী হামলার আতঙ্কে রোয়াংছড়ি ও রাজস্থলিতে আশ্রয় নিয়েছে ২৩টিরো বেশি পরিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক:: পার্বত্য অঞ্চলে সন্ত্রাসী হামলার ভয়ে রাঙ্গামাটির বিলাইছড়ি উপজেলার বড়থলি ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি পাড়ার ২৩টিরও বেশি পরিবার এখন আতঙ্কে শার্শ্ববর্তী বান্দরবান জেলায় আশ্রয় নিয়েছে।

বৃহস্পতিবার ও শুক্র দুইদিনে পরিবারগুলো বড়থলি সংলগ্ন বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলায় চলে আসে। পরে তারা বান্দরবান সদর রোয়াংছড়ি ও রাঙ্গামাটি রাজস্থলি এলাকায় বিভিন্ন পাড়ায় আশ্রয় নিয়েছে।

প্রসঙ্গত গত ২১ জুন এক দশ সশস্ত্র সন্ত্রাসী সাইজাম পাড়ায় হামলা চালালে সেখানে ৩জন নিহত হয়। আহত হয় ২ শিশু। ঐ হামলায় কুকি চীন ফ্রন্ট সংগঠনটি অংশ নিয়েছিল বলে স্থানীয় পাড়াবাসীরা অভিযোগ করেছেন।

এই ঘটনার পর থেকেই সেখানে পাড়ার লোকজনদের মধ্যে আতঙ্ক উৎকণ্ঠ দেখা দিয়েছে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রোয়াংছড়ির বরতলিতে ২ পরিবার, শঙ্কমনিতে ৬ পরিবার, ফরেস্ট কলোনীতে ৩ পরিবার, রেপোপাড়াতে ২ পরিবার, শামূখ ঝিড়ি পাড়ায় ২ পরিবার, রেইছা সিনিয়র পাড়ার ১ পরিবার সহ বিভিন্ন এলাকার তঞ্চঙ্গ্যা পাড়ায় আশ্রয় নিয়েছে।

বড়থলির বিলছড়ি পাড়া থেকে পালিয়ে আসা ফুল মালা তঞ্চঙ্গ্যা জানান, কুকি চীন ফ্রন্ট নামে একটি সংগঠনের সশস্ত্র সদস্যরা তাদের পাড়াতে এসে কয়েকদিন আগে বিভিন্ন সামগ্রি নিয়ে যায়। পরে তারা তঞ্চঙ্গ্যাদের তাদের এলাকা ছেরে তাদের যাওয়ার জন্য হুমকি দেয়। পরে আতঙ্কে তারা বান্দরবানে এসে আশ্রয় নিয়েছেন বলে জানান। এ ব্যাপারে চেষ্টা করেও চিন সংগঠনের করো বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

এদিকে রোয়াংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানিয়েছেন কিছু পরিবার রোয়াংছড়িতে চলে আসার কথা শুনেছি তবে তারা কেউ পুলিশের কাছে অভিযোগ করেনি নিরাপত্তা ও চায়নি।

 

এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা আইনত দন্ডণীয় অপরাধ।

Design & Developed BY Muktodhara Technology Ltd